কলা খাওয়ার উপকারিতা কী কী?

কলা প্রতিদিন সকালে খালি পেটে খাওয়া উচিত এতে আমাদের পেটের হজম শক্তি বৃদ্ধি করে এবং অনেক ব্যক্তির মোটা শরীরের জন্য ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে। কলা আমাদের শরীর রক্ষার ক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

অনেক স্বাস্থ্যবান মানুষ আছে প্রতিদিন শরীরের মধ্যে ফ্যাট হতেই থাকে সেই সব ব্যক্তিকে প্রতিদিন সকালে কলা খাওয়ার গুরুত্ব অনেক বেশী এতে করে ফ্যাট কমানোর সহজ একটি মাধ্যম।



স্বাস্থ্য রক্ষা

সন্ধ্যা বা ঘুমানোর আগে কলা খাওয়া মোটেও ঠিক নয় কারণ এতে আপনার সর্দি, কাশি সহ শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের মধ্যে ব্যথার সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। 

কলা অবশ্যই পাঁকা খাওয়া উচিৎ, যদি মনের ভুলে আধাঁপাকা কলা সেবক করেন তাহলে আপনার পেটে হজমের জন্য অনেক সমস্যা দেখা দিতে পারে। অতপর নিয়ম মেনে আমাদের কলা সেবন করা একান্ত প্রয়োজন।



কলা খাওয়ার উপকারিতা কী কী?

ওজন নিয়ন্ত্রণ সাহায্য করে

যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো’র পুষ্টিবিদ ম্যারি রিটজের মতে, “অন্যান্য ফলের তুলনায় কলাতে চিনি ও ক্যালরির পরিমাণ বেশি বলে খ্যাতি রয়েছে।

কলাতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আঁশ ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় কারণে ওজন কমাতে সাহায্য করে।” দিনে দুইবার খাবারের মাঝে নাস্তা হিসেবে কলা খাওয়া উপকারী বলে মনে করেন তিনি।






লবণের ভারসাম্য বজায় রাখে

নিউ ইয়র্ক’এর ‘ইন্সটিটিউট অফ কালিনারি এডুকেশন’এর পুষ্টি বিভাগ পরিচালক সেলিন বিচম্যান উপক্ষো করেছেন যে, “কলার পটাসিয়ামের মাত্রা খাদ্যতালিকাগত স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ। অন্য খাবারের সাথে লবণ বেশি খাওয়া হয়ে থাকে।







ত্বক রক্ষার্থে

যুক্তরাষ্ট্রের পুষ্টিবিদ ও ‘দ্যা ক্যান্ডিডা’ একজন লেখক লিসা রিচার্ড ইটদিস ডটকম’য়ে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলেন থাকেন, একটি মাঝারি আকারের কলাতে দৈনিক চাহিদার ১৩ ভাগ ম্যাঙ্গানিজ থাকে। যা খাবারের তুলায় যথেষ্ট হয়ে থাকে।

তার মতে, ‘ম্যাঙ্গানিজ ত্বক উন্নত করতে যথেষ্ঠ সাহায্য করে। ম্যাঙ্গানিজ কোলাজেন তৈরির গুরুত্বপূর্ণ অংশ যা তারুণ্য সহ ধরে রাখে ও উন্মুক্ত রেডিক্যাল থেকে ত্বকের ক্ষতি এবং বলিরেখা দূর করতে যথেষ্ঠ ভূমিকা পালন করে। 


আরো স্বাস্থ্য বিষয়ক জানতে ভিজিট করতে পারেন...

Post a Comment

0 Comments